শুক্রবার, ১১ জুন ২০২১, ০২:৪৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বেস্ট অর্গানাইজেশন ফর ওয়ার্কপ্লেস’ পুরস্কার পেল গ্রামীণফোন এক বছরে দেশে ফেসবুক ব্যবহারকারী বেড়েছে প্রায় ১ কোটি হাইমচরে দুই লাখ মিটার নিষিদ্ধ কারেন্টজাল জব্দ। ব্যাংক হিসাব রক্ষণাবেক্ষণ ফি আদায়ে নিষেধাজ্ঞা! বিএনপি মুখোশের আড়ালে বহুরূপী দানব : কাদের একসঙ্গে ৫০ মডেল মসজিদ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী নতুন সেনাপ্রধান এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ চাঁদপুর সদর ইউএনও সানজিদা শাহনাজকে চেয়ারম্যান খান জাহান আলী কালু পাটোয়ারী শুভেচ্ছা! চাঁদপুরের মেঘনায় বালুবাহী বাল্কহেডডুবি, ২ শ্রমিক নিখোঁজ! হাইমচর অনলাইন সাংবাদিক ফোরাম এর পক্ষ থেকে উপজেলাও থানা, প্রশাসনকে ফুলের শুভেচ্ছা!

ব্যাংক হিসাব রক্ষণাবেক্ষণ ফি আদায়ে নিষেধাজ্ঞা!

নিজস্ব প্রতিবেদক:  বিভিন্ন ধরনের সঞ্চয়ী ও চলতি হিসাবে আরোপিত ন্যূনতম ব্যালেন্স ফি, ইনসিডেন্টাল চার্জ, লেজার ফি, সার্ভিস চার্জ, কাউন্টার ট্রানজেকশন ফি বা অনুরূপ ফি আদায় থেকে বিরত থাকতে ব্যাংকগুলোকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) এ নিষেধাজ্ঞা জারি করে বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। পাশাপাশি আরও কয়েকটি চার্জ আদায় না করার নির্দেশিকা দেয়া হয়েছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, বিভিন্ন ধরনের সঞ্চয়ী হিসাবের ক্ষেত্রে এক্টিভেশন অব ডরমেন্ট অ্যাকাউন্ট বাবদ কোনো ফি আদায় করা যাবে না। মাসিক সঞ্চয়ী হিসাব (ডিপোজিট পেনশন স্কিম) বা এফডিআর বা অন্য কোনো মেয়াদি আমানত মেয়াদপূর্তির আগে নগদায়নের ক্ষেত্রে নগদায়ন ফি (প্রিম্যাচিউর এনক্যাশমেন্ট ফি) বা অনুরূপ ফি আরোপ করতে পারবে না ব্যাংক। হিসাব বন্ধ করার ক্ষেত্রে চার্জ হিসেবে সঞ্চয়ী হিসাবে সর্বোচ্চ ২০০ টাকা, চলতি হিসাবে সর্বোচ্চ ৩০০ টাকা এবং এসএনডি হিসাবে সর্বোচ্চ ৩০০ টাকা আদায় করা যাবে।

তবে বিশেষ সুবিধাপ্রাপ্ত হিসাবগুলো বন্ধ বাবদ কোনো ফি আদায় করা যাবে না। বিভিন্ন ধরনের হিসাবের বিপরীতে চেকবই ইস্যুর ক্ষেত্রে প্রকৃত খরচের ভিত্তিতে (অ্যাট অ্যাকচুয়াল) চার্জ নির্ধারণ করতে হবে। চেকবই হারানোর ক্ষেত্রে নতুন চেকবই ইস্যু বাবদ প্রকৃত খরচ ব্যতীত অতিরিক্ত চার্জ বা প্রসেসিং ফি আদায়ে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে আরও বলা হয়, সঞ্চয়ী হিসাবে ৫০০ টাকা এবং চলতি হিসাব খোলার ক্ষেত্রে এক হাজার টাকা জমা দিয়ে ব্যাংক হিসাব খুলতে পারবেন গ্রাহক। তবে, বিশেষ সুবিধাপ্রাপ্ত হিসাব খোলার ক্ষেত্রে ন্যূনতম জমার বাধ্যবাধকতা থাকবে না। সাধারণভাবে গ্রাহকদের সঞ্চয়ী ও চলতি এই দুই ধরনের হিসাব থাকে।

এক্ষেত্রে ব্যাংকগুলো কী হারে রক্ষণাবেক্ষণ ফি নেবে, বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে তা নির্ধারণ করা হয়েছে। সঞ্চয়ী হিসাবে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত গড় আমানত স্থিতির ওপর ব্যাংক এক টাকাও চার্জ নিতে পারে না। ১০ হাজার থেকে ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত স্থিতির ক্ষেত্রে নিতে পারে সর্বোচ্চ ১০০ টাকা। ২৫ হাজার টাকার বেশি তবে দুই লাখ টাকা পর্যন্ত স্থিতির ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ২০০ টাকা কাটতে পারে। এছাড়া দুই লাখ থেকে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত স্থিতির ক্ষেত্রে নিতে পারে সর্বোচ্চ ২৫০ টাকা। ১০ লাখ টাকার বেশি স্থিতির ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৩০০ টাকা চার্জ নিতে পারবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমাদের অনুসরণ করুন

প্রযুক্তি সহায়তায় ইন্টেল ওয়েব