1. admin@srejonbangla52tv.com : admin :
শুক্রবার, ০৭ অগাস্ট ২০২০, ১২:৩৪ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
***পরীক্ষামূলক সম্প্রচার***
প্রধান খবর
মৃত্যুকে করিনা ভয় যদি আসে পরাজয় ! ফের ইবিতে ছুটি বৃদ্ধি ! নোয়াখালীর সুবর্ণচরে বয়স্ক ভাতার ঘুষ বানিজ্যে বয়স্ক কৃষককে হত্যা! লক্ষ্মীপুর জেলায় রায়পুরে জোয়ারের ১২ গ্রাম পানি বন্দী হয়ে পড়েছে। লক্ষ্মীপুরে প্রবাসী পরিবারের উপর সন্ত্রাসী হামলায় আহত -২, ঘর-বাড়ী ভাংচুর লক্ষ্মীপুর কমলনগরে হঠাৎ বন্যায় সাড়ে ৫ হাজার ডিম মুরগী পানিবন্ধী অবস্থায় মারা যায়। লক্ষ্মীপুরে বিষাক্ত সাপের ছোবলে যুবক কৃষকের করুন মৃত্যুতে এলাকা জুড়ে লোকের ছায়া! অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যায় জড়িত কেউ পার পাবে না: কাদের জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে মাস্টার্স প্রফেশনাল কোর্সে ভর্তির আবেদন শুরু ! শেখ কামাল ছিলেন দূরদর্শী ও গভীর চিন্তাবোধের অধিকারী: ওবায়দুল কাদের

সুনামগঞ্জের দেখার হাওরে ৫০ কেজি রুই মাছের পোনা অবমুক্ত করেন বিরোদী দলীয় হুইপ অ্যাড. পীর মিসবাহ!

  • মঙ্গলবার, ২৮ জুলাই, ২০২০
  • ২৫ বার পড়া হয়েছে

রেজা এ্ম তালুদার টুনু (সুনামগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি): মাছ উৎপাদন বৃদ্ধি করি, সুখী সমৃদ্ধ দেশ গড়ি” এই প্রতিপাদ্য নিয়ে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার দেখার হাওরে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ ২০২০ উপলক্ষে দেশীয় প্র\জাতির রুই মাছে ৫০ কেজি পোনামাছ অবমুক্ত করা হয়েছে। সোমবার বিকেল সাড়ে ৩টায় মৎস্য অধিদপ্তর, সুনামগঞ্জের আয়োজনে পোনামাছ অবমুক্তকরণ অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে পোণা মাছ অবমুক্ত করেন বিরোধী দলীয় হুইপ অ্যাড. পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার উপজেলা নির্বাহী অফিসার জনাব ইয়াসমিন নাহার রুমা, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা জনাব মো: আবুল কালাম আজাদ; সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জনাব নিগার সুলতানা কেয়া,সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা জনাব সীমা রাণী বিশ্বাস প্রমুখ। সংসদের বিরোধী দলীয় হুইপ অ্যাড.পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ বলেছেন মৎস্য ভান্ডার হিসেবে খ্যাত ও অসংখ্য হাওর বাওর নদীনালা আর খাল বিলে সমৃদ্ধ এই সুনামগঞ্জ জেলা।

এই জেলায় দেশীয় বিভিন্ন প্রজাতির অনেক সুস্বাদু মাছে এক সময় সমৃদ্ধ ছিল যা দিয়ে জেলার মানুষের আমিষের চাহিদা মিঠিয়ে দেশ বিদেশে রপ্তানী করে অনেক বৈদেশিক মৃদ্রা অর্জন সম্ভব ছিল। কিন্তু জলবায়ূ পরিবর্তন ও রক্ষনাবেক্ষণের অভাবে এই সুস্বাদু মাছগুলো আজ কালের আর্বতে হারিয়ে যেতে বসেছে। তাই মৎস্য বিভাগের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা আরো বেশী করে সচেতন হলে এবং তদারকি জোরদার করা হলে দেশীয় সুস্বাদু মাছের ঐতিহ্য আবারো ফিরিয়ে আনা সম্ভব বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

ভালো লাগলে এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই কেটাগরির আরো খবর
© All rights reserved 2020 srejonbangla52tv

প্রযুক্তি ও কারিগরি সহায়তাঃ WhatHappen