সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ০৮:৪৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :

নির্মম নির্যাতনে মাদ্রাসা ছাড়ল ৫ শিক্ষার্থী।

সজিব বিশ্বাস (মাগুরা জেলা প্রতিনিধি): মাগুরা সদরের ভিটাশাইর জামিয়া কারিনিয়া সিদ্দিকিয়া মাদ্রাসায় পড়েন রমিন হাসান( ১১)ও তার চার খুদে আত্মীয়। বুধবার (১০ মার্চ) বিকেলে ওই খুদে শিক্ষার্থীদের বাড়িতে নিয়ে গেছেন তাদের অভিবাবকরা। নির্যাতনের শিকার ওই খুদে শিক্ষার্থীরা হলেন, রিদোয়ান (১১), আব্দুলাহ (১২), রমিন হাসান (৭), আজমাইন (৮) ও আবু হুরাইয়া (৯)।

বাড়িতে আনার পর রিদোয়ান জানান, তাদের এতটা পরিমাণ মারা হয়েছে, যা দেখে অন্য দুই শিক্ষার্থী মাদ্রাসার চতুর্থ তলার বাথরুমের ভেন্টিলেটর দিয়ে পালিয়ে গেছে। রমিন হোসেনের মা জানান। ওয়াজ মাহফিল থাকায় মাদ্রাসা থেকে রমিনকে বাড়িতে আনতে লোক পাঠায় তার মা।

তবে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ তাকে যেতে দেয় নি। পরে আবার লোক পাঠালে আসতে দেয় তাকে। খাওয়া দাওয়া শেষে ঘুমানোর সময় কেমন জানি করছিল রমিন। ছেলের কি হয়েছে জানতে চাই তার মা। তখন নিজের ওপর চলা নির্যাতনের সব কথা খুলে বলে রমিন। পরের দিন সকালে আবার রমিনকে মাদ্রাসায় পাঠায় তার মা। তবে এবার মাদ্রাসা থেকে পালানোর চেষ্টা করে রমিন ও তার চার আত্মীয়। ভাগ্যের পরিহাসে ধরা পড়ে যায় তারা।

জানতে পেরে মাদ্রাসায় যায় তাদের অভিবাবকরা। সেখানে গিয়ে তাদের ওপর চলা নির্মম নির্যাতনের কথা জানতে পারে তাদের পরিবার। মাগুরা সদর থানার ওসি জয়নাল আবেদিন বলেন, ‘অভিযোগ পেলে দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমাদের অনুসরণ করুন

প্রযুক্তি সহায়তায় ইন্টেল ওয়েব